নকল করে মুম্বাইয়ে বাড়ি কিনলো চাঁদনী

Posted by

বিনোদন প্রতিদিন : কতো শখ যে মানুষে। তবে চাঁদনী তার শখে সফল। এখনো তাকে কেউ প্রতারণার অভিযোগ দেয়নি। সময় প্রতিদিনের পাঠকদের জন্য থাকছে চাঁদনী এপিসোড।

বর্তমানে সমাজমাধ্যমের প্রচলিত মুখ চাঁদনি। মজার ভিডিয়ো তৈরি করে উপার্জন করেন তিনি। ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে তাঁর অনুরাগীর সংখ্যা সাড়ে চার লক্ষের গণ্ডি পার করে ফেলেছে। বলি অভিনেত্রী আলিয়া ভট্টের সঙ্গে রয়েছে বিশেষ সম্পর্ক। আলিয়ার কারণেই রাতারাতি কেরিয়ার তৈরি করে ফেলেছিলেন তিনি। ২৪ বছর বয়সে মুম্বইয়ে বাড়িও কিনে ফেলেছেন সমাজমাধ্যম প্রভাবী চাঁদনি ভাবদা। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামের পাতায় গৃহপ্রবেশের অনুষ্ঠানের ছবি পোস্ট করে চাঁদনি লেখেন, ‘‘২৫ হওয়ার আগেই বাড়ি। ইএমআই শোধ করার পর আবার ফিরব।’’ ২৪ বছর বয়সে বাড়ি কিনে স্বপ্নপূরণ করে ফেলেছেন চাঁদনি। মুম্বইয়ের অন্ধেরি এলাকার ওই বাড়িই তাঁর নতুন ঠিকানা। বলিপাড়ায় কানাঘুষো শোনা যায়, চাঁদনি যে বাড়িটি কিনেছেন তার মালিকানা নাকি আগে বলি অভিনেতা অক্ষয় কুমারের কাছে ছিল। অক্ষয়ের পরে সে বাড়িটি কিনেছেন চাঁদনি। বাড়ি কেনার প্রসঙ্গে চাঁদনি ইনস্টাগ্রামের পাতায় একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে বলেন, ‘‘আমার পরিবার খুব খুশি হয়েছে। আমায় নিয়ে সকলেই গর্ব বোধ করছেন।’’ বাড়ি কেনার আগে নাকি ভয়ও পেয়েছিলেন চাঁদনি। চাঁদনি জানান, বাড়ি কেনার স্বপ্ন ছিল তাঁর। বহু দিন ধরে সে কারণে টাকা জমাচ্ছিলেন তিনি। ভিডিয়োয় চাঁদনি বলেন, ‘‘আমার বয়সিদের যখন দেখতাম এ দিক ও দিক ঘুরতে যাচ্ছে, অন্য দেশে যাচ্ছে, তখন আমার খুব ভয় লাগত। মনে হত আমি সব মিস‌্ করে যাচ্ছি। আমারও খুব ইচ্ছা করত। কিন্তু আমি কোথাও যাইনি। শুধু টাকা জমিয়ে গিয়েছি।’’ চাঁদনি জানান, নতুন বাড়ির সাজে রাজস্থানি ছাপ রাখার চেষ্টা করবেন তিনি। সঙ্গে থাকবে বলিউডি ঘরানার প্রভাবও। ইতিমধ্যেই জয়পুর এবং মুম্বইয়ের বাজার থেকে কেনাকাটা করে ফেলেছেন তিনি। বলিউডের তারকাদের হাবভাব, কথা বলার ধরন হুবহু নকল করে মজার ভিডিয়ো তৈরি করেন চাঁদনি। আলিয়ার হাত ধরে কেরিয়ার শুরু হয় তাঁর। আলিয়ার কণ্ঠস্বর এবং হাবভাব নকল করে হোটেল থেকে পিৎজা অর্ডার করার ভিডিয়ো শুট করেছিলেন চাঁদনি। সেই ভিডিয়ো পোস্ট করার পর সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিয়োটি শেয়ার করেন আলিয়া নিজেও। আলিয়াকে নকল করার ভিডিয়োর মাধ্যমে রাতারাতি প্রচার পাওয়ার পর মাঝেমধ্যেই অভিনেত্রীকে নকল করতে দেখা যেত চাঁদনিকে। অন্যান্য বলি তারকাকেও নকল করতে শুরু করেন তিনি। এক পুরনো সাক্ষাৎকারে চাঁদনি বলেছিলেন, ‘‘কাউকে নকল করার স্বভাব বহু দিন ধরে রয়েছে আমার। ছোটবেলা থেকে অনেককে নকল করতাম আমি। এই স্বভাবের জন্য কম কথা শুনতে হয়নি আমায়।’’ চাঁদনি জানিয়েছিলেন, নকল করার স্বভাবের জন্য নাকি মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘‘লোকজনকে নিয়ে মজা করার স্বভাব খারাপ। স্কুলে এই কারণে আমার অনেক সমালোচনা হয়েছে। আমায় কটাক্ষও করা হত।’’ চাঁদনি বলেছিলেন, ‘‘স্কুলের এক শিক্ষিকাকে নকল করেছিলাম আমি। এই ঘটনার পর এমন পরিস্থিতির শিকার হয়েছিলাম যে ধীরে ধীরে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলাম। কিন্তু আমার নিজের ভিতর কোথাও বিশ্বাস ছিল। বন্ধুরাও পরে পাশে এসে দাঁড়িয়েছিল।’’ বর্তমানে সমাজমাধ্যমের পরিচিত মুখ চাঁদনি। মজার ভিডিয়ো তৈরি করেই উপার্জন করছেন তিনি। ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে তাঁর অনুরাগীর সংখ্যা সাড়ে চার লক্ষের গণ্ডি পার করে ফেলেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*