সময়কে ধরতে পারল না সরকার

Posted by

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য গগন চুম্বি। মানুষের সঞ্চয়ে হাত বসিয়েছে সরকার। কিন্তু বহুবার প্রমাণিত হয়েছে দেশের সাধারণ মানুষ দুর্নীতিবাজ নয়। দুর্নীতিবাজের তালিকা কিন্তু সরকারের কাছে আছে। আছে ঋণ খেলাপির লিস্ট। তাহলে কেন এত ইদুর বিড়াল খেলা। মন্ত্রীরা দামি গাড়ি হাঁকিয়ে সাধারণ মানুষের টাকায় কেনা জ্বালানি তেল নিয়ে ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছেন। আর বড় বড় কথা বলছেন। তাদের অতি কথনে দেশের অতি প্রাচীন একটি দল যারা বর্তমানে সরকারে তারাও বিব্রত। সেই সাথে সীমাহীন কষ্টে দিন যাপন করছেন এদেশের মানুষ। পার্শ্ববর্তী দেশ রাশিয়া থেকে সহজে জ্বালানি তেল নিয়ে আসতে পেরেছে। এরই মধ্যে তাদের কেটে গেছে অন্ধকার। সেই তুলনায় বাংলাদেশের মানুষের জ্বালানি তেলের ব্যবহারের পরিমাণ অনেক কম। রাস্তায় যে গাড়িগুলো আমরা দেখতে পাই তার অধিকাংশই সরকারি গাড়ি। পুলিশ আমলা ও মন্ত্রীদের। এখন নতুন খবর শোনা যাচ্ছে রাশিয়ার তেল আমাদের জন্য অনুপযোগী। জনগণের মনে সন্দেহের বীজ দানা বাধতে শুরু করেছে সরকার কেন তাদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন। এ প্রশ্নের উত্তর একমাত্র দেশের সরকার প্রধানই জানেন। সময় যত গড়াবে দেশের প্রান্তিক মানুষ প্রথম দুর্ভিক্ষের শিকার হবে। তারপর আস্তে আস্তে গিলে খাবে দুর্ভিক্ষ মধ্যবিত্তকে। এক অস্থির সময় সামনে। একটি সরকার কি করে জনগণের দুর্ভোগ বাড়াতে পারে তা বর্তমান মন্ত্রীদের কথায় প্রকাশ। বিশেষ করে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নাসিরুল হামিদ তার দিকে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এখনই যদি বাস্তব বিষয়টা উপলব্ধি করে সঠিক ও চটজলদি সিদ্ধান্ত নেন তাহলে দুর্ভিক্ষের হাত থেকে রক্ষা পাবে নিম্ন শ্রেণীর ও মধ্যবিত্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

*